জগন্নাথপুরে ছাত্রলীগ নেতার ওপর হামলার ঘটনায় ইউপি চেয়ারম্যানকে আসামী করে মামলা দায়ের

জগন্নাথপুর উপজেলার সৈয়দপুর শাহারপাড়া  ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সহ প্রচার সম্পাদক জুম্মান আহমদ জয়ের ওপর হামলার ঘটনায় সৈয়দপুর শাহারপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান তৈয়ব  মিয়া কামালীকে প্রধান আসামী করে জগন্নাথপুর থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

গতকাল মঙ্গলবার রাতে ছাত্রলীগ নেতা জুম্মান আহমদ জয় বাদী হয়ে এই মামলা দায়ের করেন।



পুলিশ, ও মামলার বিবরন সুত্রে জানা যায়, গত ২৬ সেপ্টেম্বর ইউনিয়ন পরিষদে নাগরিক সার্টিফিকেট আনতে যান ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সহ প্রচার সম্পাদক সৈয়দপুর গোয়ালগাঁও গ্রামের জুম্মান আহমদ জয়। এসময় পরিষদের চেয়ারম্যান ছাত্রলীগ নেতাকে বলেন, ফেসবুকে আমার বিরুদ্ধে তুই লেখালেখি করিস, তোকে সার্টিফিকেট দেবনা। নিয়ে উভয়ের মধ্যে বাকবিতন্ডা হয়। ওইদিন রাত সাড়ে ৯টার দিকে স্থানীয় বাজার থেকে বাড়ি ফেরার পথে পথিমধ্য  ইউপি চেয়ারম্যানের নির্দেশে তাঁর লোকজন ছাত্রলীগ নেতার  ওপর অর্তকিতভাব হামলা তাকে পিটিয়ে রক্তাক্ত করে পালিয়ে যায়। আহত অবস্থায় স্থানীয়রা তাকে জগন্নাথপুর উপজেলা স্বাস্হ্য কমপ্লেক্স নিয়ে যান পরে তাকে সিলেট ওসমানি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ওই হামলার ঘটনায় স্থানীয় চেয়ারম্যান তৈয়ব মিয়াকে প্রধান আসামী করে ৬ জনের নাম উল্লেখ করে থানায় মামলা করা হয়েছে। মামলার অপর আসামিরা হলেন, আইয়ুব মিয়া,চুনু মিয়া কামালী, শফিকুল কামালী, মমিন মিয়া এ সুমন মিয়া।

ছাত্রলীগ নেতা মামলার এজাহারে উল্লেখ করেন, গত ইউপি নির্বাচনে বর্তমান চেয়ারম্যানের পক্ষে কাজ না করায় চেয়ারম্যান তার ওপর ক্ষোব্দ হন।

চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে দুর্নীতি, সরকারি গ্যাজেট জালিয়াতি,অতিরিক্ত ফি আদায়ের অভিযোগে সুনামগঞ্জ জেলা জজ আদালতে দুদক আইনে  মামলা হয়েছে। মামলা নং ১/২০১৯ইং। মামলাটি তদন্তাধীন রয়েছে বলে মামলায় উল্লেখ করা হয়।

জগন্নাথপুর থানার উপ পরির্দশক (এসআই) লুৎফুর রহমান জগন্নাথপুর টুয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, ছাত্রলীগ নেতার ওপর মামলার ঘটনায় ইউপি চেয়ারম্যানকে প্রধান আসামি করে মামলা হয়েছে। আসামী গ্রেপ্তারি আমাদের অভিযান চলছে।

তবে ইউপি চেয়ারম্যান তৈয়ব মিয়া কামালী জানান, তাঁর বিরুদ্ধে একটি মহল ষড়যন্ত্র করছে। হামলার ঘটনায় তিনি জড়িত নন বলে জানিয়েছেন

0 Comments