সমসাময়িক সৈয়দপুরকে নিয়ে সৈয়দ রাহিন উদ্দিনের কিছু কথা





সমসাময়িক সৈয়দপুর

সৈয়দ রাহিন উদ্দিন   

প্রিয় সৈয়দপুরবাসী আসসালামু আলাইকুম 

৩৬০ আউলিয়ার অন্যতম সফরসঙ্গী হযরত সৈয়দ শাহ্ শামসুদ্দিন এর গ্রাম সৈয়দপুর। এই গ্রামের ইতিহাস ঐতিহ্য আছে, এটা অনেক দামি, এটা বুঝা যায় গ্রাম থেকে অন্য জায়গা গেলে। অনেকেই বাড়ি কই জিজ্ঞাস করলে যদি বলি সৈয়দপুর, তাইলে আলাদা একটা সম্মান দেয়। 

কিন্তু বিগত কয়েকটি ইস্যু কে কেন্দ্র করে, সৈয়দপুর
গ্রামে একটি ভয়াবহ নাম হয়ে গেছে। 

ফেইসবুকে লেখালিখি অনেকেই করতেছেন ভালো কথা গ্রাম কে নিয়ে। আলোচনা সমালোচনা করবেন ভালো কথা। কিন্তু গ্রামের একটা ঐতিহ্য আছে মনে রাখতে হবে, কোনো সমস্যা থাকলে এটা আমাদের গ্রামের বিষয় এটা নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে লেখালেখি করা কতটা যুক্তিসঙ্গ তা আমার জ্ঞান ধরে না। 

কয়েকমাস ধরে, যে ভাবে গ্রাম সম্মানিত মানুষ ও মুরুব্বিদের বিষয়ে ছবি দিয়ে ^সাধিন মোল্লা^ নামক আইডি থেকে ফেইসবুকে স্ট্যাটাস দিচ্ছে, আর এমন ভাষা  ব্যাবহার করছে এটা আসলেই 
অনেক দুঃখজনক। তাদের আবার পরিচয় গোপন রেখে এই সব স্ট্যাটাস দিয়ে আসতেছে। 
আর এই স্ট্যাটাস লাইক কমেন্ট করে আসতেছে 
তথাকথিত কিছু অশিক্ষিত গ্রাম বুন্ধিজীবিরা।



আমাদের ছাত্র ও তরুণ্য প্রজন্মকে কী শিখাছেন 
আপনাদের কাছে প্রশ্ন রাখলাম। 

ফেইসবুক সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম এখানে 
সব অঞ্চলের মানুষ আছে। কয়েকমাস ধরে কোনো 
জায়গা দাঁড়িয়ে কথা বললে অনেকেই বলে, তোমাদের 
গ্রামে কী চলতেছে? লজ্জা কিছু বলতে পারিনা!! 

আমাদের এত বছরের ঐতিহ্য সম্মানহানি কি হচ্ছে না, গ্রামের কথাকথিত কিছু অশিক্ষিত বুন্ধিজীবিদের কারনে অন্য অঞ্চলের মানুষের সামনে দাঁড়িয়ে কথা বললে পারিনা। 

আমার সৈয়দপুরকে নিয়ে লিখারমত বয়স হয়নি, কিন্তু আমার জ্ঞানে কতটুকু নেয়, আমাদের গ্রামের সমস্যা 
আমাদের সমাধান করতে হবে। অন্য কোনো গ্রাম থেকে আমাদের সমস্যা সমাধান করতে পারবেনা। 

তাই বলব যে বা যারা ভূয়া আইডি থেকে লেখালেখি করছেন এই সব বন্ধ করেন, আর যদি এতই সাহসী ব্যাক্তি হয়ে থাকেন তাইলে আপনার পরিচয় দিয়ে লেখালেখি করেন। 

আর আমাদের ছাত্র সমাজ তরুণ প্রজন্মকে নিয়ে বসেন কথা বলেন দেখি আপনি কত বড় বুন্ধিজীবি ,এত গ্রাম ও গ্রামের সমাজ কে নিয়ে ভাবেন। 

[আমার কথায় যদি কেও কষ্ট পেয়ে থাকেন তাইলে 
ক্ষমা সুন্দর দূষ্টিতে  দেখবেন ]

ভূয়া আইডি নিপাক যাক সৈয়দপুরের ঐতিহ্য মুক্তি পাক]

ধন্যবাদ!

0 Comments