ইউপি চেয়ারম্যান কর্তৃক যুবলীগের সাধারণ সম্পাদককে হত্যার চেষ্টা ও ছাত্রলীগ নেতার ওপর হামলার প্রতিবাদে সৈয়দপুর বাজারে প্রতিবাদ সভা।

ইউপি চেয়ারম্যান কর্তৃক যুবলীগের সাধারণ সম্পাদককে হত্যার চেষ্টা ও ছাত্রলীগ নেতার ওপর হামলার প্রতিবাদে সৈয়দপুর বাজারে প্রতিবাদ সভা।

সৈয়দপুর শাহারপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কুখ্যাত মাদক ব্যবসায়ী তৈয়ব মিয়া কামালী ও তার সন্রাস বাহিনী কতৃক জগন্নাথপুর উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক আবুল হোসেন লালন কে রাতের অন্ধকারে হত্যার চেষ্টা ও ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সহ প্রচার সম্পাদক সৈয়দ জুম্মান আহমদ জয়ের উপর হামলার প্রতিবাদে স্থানীয় সৈয়দপুর বাজারে ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ যুবলীগ ও ছাত্রলীগের উদ্যোগে প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় সভাপতিত্ব করেন ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ মনোয়ার আলী ও যুবলীগ নেতা সৈয়দ সাইদুল হকের পরিচালনায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জগন্নাথপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক জালাল হোসেন কুদ্দুস কামালী,  বিশেষ অতিথিবৃন্দ হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের উপদেষ্টা মুকিত মিয়া কামালী  ও সান্ডারল্যান্ড আওয়ামীলীগের সাবেক সভাপতি শেখ সালেহ আহমদ ছোট মিয়া ও ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের উপদেষ্টা আশরাফ কামালী জগন্নাথপুর উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক আবুল হোসেন লালন, জগন্নাথপুর উপজেলা যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আবু তাহের রোহান, উপজেলা যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জুবেদ খান, ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের আইন বিষয়ক সম্পাদক এডঃ আব্দুর রহমান, ইউনিয়ন যুবলীগের সাবেক আহবায়ক জাহাঙ্গীর আলম, ইউনিয়ন যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক কামাল হোসেন শিশু, ইউনিয়ন যুবলীগের সদস্য সৈয়দ মিজান,  তুরন আহমদ, ইউনিয়ন যুবলীগের সদস্য মোঃ  গুলজার  ও যুবলীগ,উপজেলা সেচ্চাসেবকলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক কামরুল, উপজেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি সৈয়দ মিজান, শেখ শিব্বির, ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি মােঃ রাজু,ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি জাকারিয়া, যুগ্ন-সম্পাদক হাফিজ নাইম, সৈয়দ মমসাদ, সৈয়দ নাইম,সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ রাহিন উদ্দিন, ওয়ার্ড ছাত্রলীগ সভাপতি হাফিজ নাঈম,ওয়ার্ড সভাপতি হাফিজ মুহাম্মদ আলী, সেচ্ছাসেবকলীগ  ও ছাত্রলীগ নেতৃবৃন্দ। এসময় বক্তরা বলেন বিগত ইউনিয়ন নির্বাচনে দলে নবাগত হাইব্রিড কুখ্যাত মাদক ব্যবসায়ী তৈয়ব মিয়া চেয়ারম্যান নির্বাচিত হওয়ার পর থেকে নির্বাচনে নৌকার প্রাথীর পক্ষে কাজ করার কারণে সে ক্ষিপ্ত হয়ে আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীদের নানান ভাবে হয়রানি করে আসছে। তারই ধারাবাহিকতায় সে নিজের আধিপত্যকে জাহির করার জন্য সে পেশীশক্তি ব্যবহার করে। আওয়ামী পরিবার কে নস্যাৎ করার যে ষড়যন্ত্র করেছে তা আমরা যেকোনো মুল্যে প্রতিহত করবো পাশাপাশি থাকে প্রশাসনের প্রতি তার অবৈধ অস্ত্র উদ্ধারের দাবি জানান। সভায় সর্বসম্মতিতে তৈয়ব মিয়া কে সৈয়দপুর শাহারপাড়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সকল কর্মসুচী থেকে অবান্ঞিত ঘোষণা করেন।

0 Comments